সকল মেনু

ইউনাইটেড এয়ার: অনিয়ম ও কারসাজি তদন্তে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন

সিনিয়র রিপোর্টার: ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ লিমিটেডের ১০ বছরের অনিয়ম ও কারসাজি তদন্তে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইস) পাঁচ সদস্যের এ কমিটি গঠন করে।

তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন- বিএসইসির অতিরিক্ত পরিচালক মো. ওহিদুল ইসলাম, উপ-পরিচালক শাহারিয়ার পারভেজ ও মো. শাহনেওয়াজ। এ ছাড়াও বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে একজন করে সদস্য রাখা হয়েছে।

কমিটিকে আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

এদিকে, পুঁজিবাজারের ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেট থেকে অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ডে (এটিবি) স্থানান্তরে অপেক্ষমাণ ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের আগের পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

প্রতিষ্ঠানটির সাবেক পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে তহবিল তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় বিএসইসিকে ইউনাইটেড এয়ারের গত ১০ বছরের কোম্পানির অডিট করতে সুপারিশ করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি গঠন করল বিএসইসি।

ইউনাইটেড এয়ার বর্তমানে ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটে রয়েছে। এটিকে অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ডে (এটিবি) স্থানান্তর করা হবে। তদন্ত কমিটি গঠনের পাশাপাশি কোম্পানিটির আর্থিক অসঙ্গতি খতিয়ে দেখতে বিশেষ নিরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের বর্তমান চেয়ারম্যান কাজী ওয়াহিদ উল আলম বলেন, কোম্পানিটির পূর্বের পরিচালনা পর্ষদের কর্মকাণ্ড খতিয়ে দেখতে বিএসইসি তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোম্পানিটির আগের পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে তহবিল তসরুপের অভিযোগ রয়েছে।

গঠিত কমিটি তা খতিয়ে দেখবে। কোম্পানিটির পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের কাজে কোনও অসুবিধা হবে না। কোম্পানিটিকে পুনরুজ্জীবিত করতে কাজ করে যাচ্ছি। এ কাজে বিএসইসি সর্বাত্মক সহযোগিতা করছে।

এদিকে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের সাবেক ফাউন্ডার চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে ১ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। তালিকাভুক্তির পরের বছর ২০১১ সালে কোম্পানিটি ১০ টাকা ফেসভ্যালুর সঙ্গে অতিরিক্ত ৫ টাকা প্রিমিয়াম নিয়ে ২১ কোটি রাইট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ৩১৫ কোটি টাকা পুঁজিবাজার থেকে সংগ্রহ করে।

৮২৮ কোটি ১০ লাখ টাকা পরিশোধিত মূলধনের কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ৮২ কোটি ৮০ লাখ ৯৮ হাজার ৪৮০টি। এর মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের হাতে ২.৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ১১.০৭ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে ৮৬.৪৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের শেয়ার সর্বশেষ ১.৯০ টাকায় লেনদেন হয়েছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, কর্তৃপক্ষ এর দায়ভার নেবে না।

top