সকল মেনু

বিনিয়োগে নিয়মের তোয়াক্কা করেনি প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স

স্টাফ রিপোর্টার: বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) নির্দেশনা না মেনে শত কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে বীমা খাতের কোম্পানি প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালকরা। নিয়মানুযায়ী, জীবন বীমা কোম্পানির পলিসিহোল্ডারের দায় বা বীমাকারীর সম্পদের ৩০ শতাংশ সরকারি সিকিউরিটিজে বিনিয়োগের বাধ্যবাধকতা থাকলেও তা পরিপালন করা হয়নি।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রকাশিত কোম্পানিটির সর্বশেষ আর্থিক হিসাবের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে এমনটা দেখা গিয়েছে।

নিরীক্ষা কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী, আইডিআরএর নির্দেশনা মেনে বীমাকারীর সম্পদের ৩০ শতাংশ হিসেবে সরকারি সিকিউরিটিজে ২৫৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করার কথা। এ ক্ষেত্রে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে মাত্র ১৭ কোটি ৬৮ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছে কোম্পানিটি। আর, এতে সরকারি সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ২৩৫ কোটি ৩২ লাখ টাকার।

নিরীক্ষা প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, স্থাবর সম্পদে পলিসিহোল্ডারের দায় বা বিমাকারীর সম্পদের ২০ শতাংশ হিসেবে ওই সম্পদে ১৬৮ কোটি ৬৭ লাখ টাকা বিনিয়োগ করার বাধ্যবাধকতা ছিল। এ ক্ষেত্রেও নিয়ম না মেনে ২৭৭ কোটি ৭৭ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছে কোম্পানিটি। যা নির্ধারিত পরিমাণের চেয়ে বেশি।

আবার, আইডিআরএর নির্দেশনা অনুযায়ী, সাবসিডিয়ারি কোম্পানিতে বিমা কোম্পানি পলিসিহোল্ডারের দায় বা বিমাকারীর সম্পদের সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ বিনিয়োগ করতে পারবে। সে হিসেবে সর্বোচ্চ ৮৪ কোটি ৩৩ লাখ টাকা বিনিয়োগ করার কথা প্রাইম ইসলামী লাইফের। তবে, নিয়ম লঙ্ঘন করে ৮৭ কোটি ৭২ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছে কোম্পানিটি।

আইডিআরএর ২০১৮ সালের ২৯ মের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রাইম ইসলামী লাইফের উদ্যোক্তা বা পরিচালকদের মালিকানায় শেয়ার ধারণের পরিমাণ অন্তত ৬০ শতাংশ থাকার কথা। নিয়মের তোয়াক্কা না করে ৩৮.০৮ শতাংশ শেয়ার ধারণ করছে কোম্পানিটির উদ্যোক্তা/পরিচালকরা।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, কর্তৃপক্ষ এর দায়ভার নেবে না।

top