সকল মেনু

এজেন্টের মাধ্যমে বিক্রি হবে মিউচুয়াল ফান্ড

স্টাফ রিপোর্টার: দেশে মিউচুয়াল ফান্ড জনপ্রিয় করতে এজেন্টের মাধ্যমে মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট বিক্রির উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এ লক্ষ্যে ‘লাইসেন্সডমিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট প্রোগ্রাম’ চালু করার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম)।

বিআইসিএম’র কোর্স সম্পন্ন করে যে কেউ মিউচুয়াল ফান্ড বিক্রির এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে পারবেন। একজন এজেন্ট তার ইচ্ছা অনুযায়ী যতখুশি ততো ফান্ড ম্যানেজারের মিউচুয়াল ফান্ড বিক্রি করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট’র অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বিআইসিএম’র নির্বাহী প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. মাহমুদা আক্তার বলেন, মিউচুয়াল ফান্ড রুলস ২০০১-এ স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করা আছে যে বিআইসিএম থেকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কোর্স সম্পন্নকারীরা মিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে পারবে। এই লক্ষ্যে বিআইসিএম এই লাইসেন্সড মিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট কোর্স চালুর ব্যাপারে উদ্যগ গ্রহণ করে।

তিনি বলেন, প্রাথমিক ভাবে এর কারিকুলাম ডিজাইনে ইন্সটিটিউটের অনুষদ সদস্যরা খসড়া তৈরি করেন। পরবর্তীতে, বাংলাদেশ সিকিউরিটজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)-এর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সহায়তায় এই ইন্ডাস্ট্রিতে যারা শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছেন এবং যাদের এ সংক্রান্ত তাত্ত্বিক এবং বাংলাদেশের বাস্তবতার ভিত্তিতে প্রায়োগিক জ্ঞান রয়েছে, এরকম বিশেষজ্ঞদের নিয়ে ইন্সটিটিউটের অনুষদ সদস্যরা কর্মশালায় মিলিত হন।

এরপর আরেকটি কর্মশালার মাধ্যমে এর কারিকুলাম পূর্ণাঙ্গ রূপ দেয়া হয়। তারপর এটি ইন্সটিটিউটের একাডেমিক কমিটিতে উপস্থাপন করা হয় এবং সর্বশেষ পরিচালনা পর্ষদের সভাতে এ ব্যাপারটি অবগত করা হয়। কয়েক ধাপে এর কারিকুলাম চূড়ান্ত করার কারণে আমরা বলতে পারি যে এর কারিকুলামে বাস্তব সম্মত এবং প্রায়োগিক ব্যাপারটি পুরোপুরি ভাবে নিশ্চিত করা হয়েছে।

তিনি জানান, প্রোগ্রামটি ৩০ ঘন্টার মোট ৯টি মডিউলে বিভক্ত। যা ৪ দিনে বা ৯ দিনে সম্পন্ন করা হবে। এ ব্যাপারে অংশগ্রহণকারীদের রেসপন্স জানার পর এটা চূড়ান্ত করা হবে। ক্লাসগুলো বিআইসিএম’র ক্যাম্পাসেই হবে এবং প্রতি ব্যাচে আপাতত ১৫ জনকে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে।

তিনি আরও জানান, কোর্স ফি থাকবে ১২ হাজার টাকা। তবে প্রথম তিনটি ব্যাচের জন্য ৫০ শতাংশ ছাড়ে প্রোগ্রামটি চলমান থাকবে। আর গ্রুপ রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রেও থাকবে বিশেষ ছাড়। অভিজ্ঞ এবং এ পেশাতে বা সমগোত্রীয় পেশায় যারা ইতোমধ্যে আছেন, তাদের জন্য ক্ষেত্র বিশেষে বৃত্তি দেয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আইডিএলসি এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের চীফ অপারেটিং অফিসার কাজী মাশুক-উল হক, শান্তা এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান হাসান, গ্রীণ ডেল্টা ড্রাগন এসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শাহবাজ তালাত, ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ)-এর সভাপতি জিয়াউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আবু আলী প্রমুখ।

আইডিএলসি এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের চীফ অপারেটিং অফিসার কাজী মাশুক-উল হক বলেন, আমাদের পার্শবর্তী দেশ ভারতে মিউচুয়াল ফান্ড বেশ জনপ্রিয়। সেখানে এজেন্টের মাধ্যমে মিউচ্যুয়াল ফান্ড বিক্রির কার্যক্রম চালু আছে। আমাদের দেশে মিউচুয়াল ফান্ড এখনো সেইভাবে জনপ্রিয় হয়নি। এর মাধ্যমে (এজেন্টের মাধ্যমে মিউচুয়াল ফান্ড বিক্রি) দেশে মিউচুয়াল ফান্ডকে জনপ্রিয় করা যাবে।

বর্তমানে শেয়ারবাজারে যেসব মিউচুয়াল ফান্ড রয়েছে তার বেশিরভাগের দাম এনএভি’র অনেক নিচে। এরপরও ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না। আবার ফান্ড ম্যানেজারগুলোর দক্ষতার অভাব রয়েছে এবং অতিতে বিভিন্ন অনিয়মের তথ্যও পাওয়া গেছে। এ পরিস্থিতিতে এজেন্টের মাধ্যমে মিউচুয়াল ফান্ড বিক্রির উদ্যোগ কতোটা সফল হবে? সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের উত্তরে শান্তা এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান হাসান বলেন, আমরা আশা করি উদ্যোগটা সফল হবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে শেয়ারবাজারে অনেক মিউচুয়াল ফান্ড এনএভি’র তুলনায় অনেক কম দামে বিক্রি হচ্ছে। কিছু মিউচ্যুয়াল ফান্ড ভালো করতে পারছে না। তার মানে এই নয় সব মিউচুয়াল ফান্ড খারাপ। বেশ কিছু মিউচুয়াল ফান্ড ভালো করছে। এজেন্টরা এ ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ দিতে পারবেন। কোন মিউচুয়াল ফান্ড ভালো করছে, কোনটি খারাপ করছে তার তথ্য তুলে ধরে এজেন্টরা বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ দিতে পারবেন।

ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ)-এর সভাপতি জিয়াউর রহমান বলেন, এটি (এজেন্টের মাধ্যমে মিউচুয়াল ফান্ড বিক্রি) একটি ভালো উদ্যোগ। তবে অতিতে মিউচুয়াল ফান্ড নিয়ে বেশকিছু অনিয়মের তথ্য উঠে এসেছে। সম্প্রাতিক সময়েও অনিয়ম হয়েছে। তাই ফান্ড ম্যানেজাররা যাতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতার মাধ্যমে থাকে তারও ব্যবস্থা করতে হবে। তা না হলে এর সুফল পাওয়া যাবে না।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, কর্তৃপক্ষ এর দায়ভার নেবে না।

top