সকল মেনু

রিজার্ভ থেকে আর ডলার বিক্রি করবে না বাংলাদেশ ব্যাংক

স্টাফ রিপোর্টার: দীর্ঘদিন ধরে ডলারের বাজারে অস্থিরতা চলছে। সংকট কাটাতে ধারাবাহিকভাবে রিজার্ভ থেকে ডলার বিক্রি করছিলো বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে রিজার্ভ থেকে আর কোনো ডলার বিক্রি করবেন না বলে জানিয়েছেন ব্যাংকটির গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার।

সোমবার, ৬ নভেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

গভর্নর বলেন, রিজার্ভ থেকে আর কোনো ডলার বিক্রি করা হবে না। এতদিন রিজার্ভ থেকে ব্যাপক সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে। তবে সামনের দিনগুলোতে এরকম সুবিধা আর দিবো না।

তিনি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। খুব শীঘ্রই অর্থনীতি স্থিতিশীল হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

দেশে বর্তমানে চলছে অর্থনৈতিক অস্থিরতা। এমন অস্থিরতার মধ্যে অর্থনীতিবিদ’সহ বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে সঙ্গে ধারাবাহিক আলোচনা করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আজ সর্বশেষ সাংবাদিকদের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলো আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

বৈঠকে ইকোনোমিক রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি মোহাম্মদ রেফায়েত উল্যাহ মৃধা ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেমসহ বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের সিনিয়র সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিন বৈঠকে, ডলার সংকট কাটাতে ডলারে বন্ড ছাড়ার পরামর্শ দিয়েছেন সাংবাদিকরা।

বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকরা বলেন, বর্তমানে দেশে ডলার সংকট চলছে। এমন পরিস্থিতিতে আমরা ডলারে বন্ড ছাড়ার পরামর্শ দিয়েছি। এটি চালু হলে প্রবাসীরা ও বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগ করতে পারবে। এর ফলে ডলার প্রবাহ গতিশীল হবে।

তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম চার মাসে (জুলাই-অক্টোবর) রিজার্ভ থেকে ডলার বিক্রির পরিমাণ গিয়ে ঠেকেছে সাড়ে চার বিলিয়ন ডলারে। গত অর্থবছরের একই সময়ে বিক্রির পরিমাণ ছিল পাঁচ বিলিয়ন ডলারের বেশি।

ডলার সংকট নিয়ন্ত্রণ করতে আমদানিতে বেশ কড়াকড়ি আরোপ করেছিলো বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে বিলাসী পণ্য আমদানির পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় রিজার্ভ থেকে ধারাবাহিকভাবে ডলার বিক্রি করে আসছিলো ব্যাংকটি।

এক্ষেত্রে সাংবাদিকরা বিলাসী পণ্য আমদানিতে আরও কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেন। তারা বলেন, ডলার সংকট কাটাতে হলে অবশ্যই বিলাসী পণ্যের আমদানিতে আরও কড়াকড়ি আরোপ করতে হবে। তাই আমরা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে এ বিষয়ে বলেছি।

বৈঠক শেষে রেফায়েত উল্যাহ মৃধা বলেন, মূলত বৈঠকে মুদ্রানীতি-ডলারের দাম ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমাদের অর্থনীতিকে কিভাবে স্থিতিশীল করা যায় সেটি নিয়েও আমরা আলোচনা করেছি। গভর্নর বলেছেন, খুব দ্রুতই আমাদের অর্থনীতি স্থিতিশীল হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, কর্তৃপক্ষ এর দায়ভার নেবে না।

top