সকল মেনু

বন্ড ইস্যুতে বিএসইসির সম্মতি পেল রেনাটা

সিনিয়র রিপোর্টার: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের প্রতিষ্ঠান রেনাটা লিমিটেডকে ৬৬০ কোটি ১৫ লাখ টাকার জিরো কুপন বন্ড ইস্যুর সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, এর আগে বিএসইসির ৮৯৬তম কমিশন সভায় এ বন্ডের অনুমোদন দেয়া হয়। সংস্থাটির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বন্ডটি অরূপান্তরযোগ্য ও পুরোপুরি অবসায়নযোগ্য। বন্ডটির মেয়াদ এক থেকে পাঁচ বছর। এ বন্ড ব্যাংক, নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ও উচ্চ সম্পদশালী ব্যক্তিদের প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ইস্যু করা হবে। বন্ডটির প্রতি ইউনিটের অভিহিত মূল্য ১ লাখ টাকা। বন্ডটির মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করে কোম্পানিটি বর্তমান ব্যাংক ঋণ পরিশোধ করবে।

অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি ২০২৩-২৪ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির কর-পরবর্তী নিট মুনাফা হয়েছে ১০১ কোটি ৯৭ লাখ টাকা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১২৪ কোটি ৫২ লাখ টাকা। আলোচ্য প্রান্তিকে কোম্পানিটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ৮ টাকা ৭৯ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১০ টাকা ৮৬ পয়সা।

সর্বশেষ ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২৩ হিসাব বছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ৬২ দশমিক ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে রেনাটার পর্ষদ। নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত নিট মুনাফা হয়েছে ২৩৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৫১১ কোটি ১০ লাখ টাকা। ২০২৩ হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ২০ টাকা ৪০ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৪৪ টাকা ৫৬ পয়সা। গত ৩০ জুন শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৬৬ টাকা ৮৭ পয়সায়।

২০২২ হিসাব বছরের জন্য শেয়াহোল্ডারদের ১৪৭ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছে রেনাটা লিমিটেড। এর মধ্যে ১৪০ শতাংশ নগদ ও ৭ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ। আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী সমন্বিত নিট মুনাফা হয়েছে ৫১১ কোটি ১০ লাখ টাকা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৫০৬ কোটি ২০ লাখ টাকা। আলোচ্য হিসাব বছরে রেনাটার সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ৪৭ টাকা ৬৮ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৪৭ টাকা ২২ পয়সা। ৩০ জুন ২০২২ শেষে কোম্পানিটির সমন্বিত এনএভিপিএস দাঁড়ায় ২৭৪ টাকা ৩৯ পয়সায়।

সমাপ্ত ২০২১ হিসাব বছরের জন্য বিনিয়োগকারীদের ১৫৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল রেনাটা। এর মধ্যে ১৪৫ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ। আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ৪৭ টাকা ২২ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৪১ টাকা ১৭ পয়সা।

২০১৯-২০ হিসাব বছরে কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ১৩০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছিল। ২০১৮-১৯ হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের ১০০ শতাংশ নগদের পাশাপাশি ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে রেনাটা। এছাড়া ২০১৭-১৮ হিসাব বছরে ৯৫ শতাংশ নগদ ও ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, কর্তৃপক্ষ এর দায়ভার নেবে না।

top